1. admin@muhurto.tv : muhurtotv :
  2. info@netpeon.org : Ali Siddiki : Ali Siddiki
  3. smbabu.mcj@outlook.com : S M Babu : S M Babu
বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১২:১৩ পূর্বাহ্ন

মাদারীপুরে ফুটপাতের ওপর আ.লীগ নেতার দোকান নির্মাণ

ইমদাদুল হক মিলন, সংবাদ মুহূর্ত, মাদারীপুর।
  • তথ্য হালনাগাদের সময়ঃ মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী, ২০২২
  • ২১৮ প্রদর্শিত সময়ঃ



মাদারীপুর সরকারি কলেজ রোড এলাকায় ফুটপাতের একটি অংশ দখল করে জেলা আওয়ামী লীগের এক নেতা চারটি টিনশেড দোকানঘর তুলেছেন। রাতারাতি দোকানঘরগুলো নির্মাণের পরে ভাড়াও দিয়েছেন তিনি। ফুটপাতের ওপর দোকানঘর থাকায় রাস্তা দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীরা।

স্থানীয়রা জানান, মাদারীপুর সরকারি কলেজের পিছনের সড়কটি কলেজ রোড নামে পরিচিত। পৌরসভার ব্যস্ততম এই সড়কটি দিয়ে নিয়মিত স্কুল, কলেজের অসংখ্য শিক্ষার্থী চলাচল করে। এর জন্য সড়কটির দু’পাশেই ফুটপাত রয়েছে। কলেজের পিছনের গেইটের সামনে চারটি টিনশেড দোকানঘর তুলেছেন জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক বাবু শরীফ। দোকানঘর তোলার পরপরই দোকান প্রতি ২০ হাজার টাকা অগ্রীম নিয়ে প্রতি মাসে দোকান প্রতি দুই হাজার টাকার চুক্তিতে ভাড়া দিয়েছেন।

মঙ্গলবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কলেজের পিছনের ফটকের সামনেই ফুটপাত দখল করে সদ্য নির্মিত চারটি টিনশেড দোকানঘর। একটি দোকানে চা, কফি বিক্রি হচ্ছে। অন্য দুটি দোকান ফটোকপি ও স্টেশনারি পণ্য। আর একটি বন্ধ রয়েছে। পৌরসভার এই সড়কটির প্রায় একশ মিটার ফুটপাত এই চারটি দোকানের দখলে। দোকানগুলোর সামনে ক্রেতাদের বসার জন্য চেয়ার ও টুল রাখা হয়েছে। ফলে ফুটপাতের প্রায় মিটার অংশে শিক্ষার্থী ও পথচারীরা ব্যবহার করতে পারছে না। তাদের ঝুঁকি নিয়ে সড়কে নেমে চলাচল করতে হচ্ছে।

কলেজ রোড সড়কে নিয়মিত চলাচলকারী কলেজছাত্র নাজমুল হোসেইল বলেন, ‘কলেজ রোডে আরও দোকান আছে। কিন্তু একটিও তো ফুটপাত দখল করে নাই। দুই দিন ধরে দেখছি, হঠাৎ করে ফুটপাতের ওপরেই চারটি দোকান। প্রথমে কিছুটা অবাক হয়েছি। পরে শুনি স্থানীয় প্রভাবশালীরা এই দোকান ভাড়া দিয়েছে।’

স্টার কফি বারের দোকানী রিফাত হোসেন ফুটপাতের দোকান সম্পর্কে বলেন, ‘আমি দোকান ভাড়া নিয়েছি। ফুটপাত তো আর আমি দখল করিনি। দোকান ভাড়া নেওয়ার আগে ২০ হাজার টাকা অ্যাডভান্স আর মাসিক দুই হাজার টাকা চুক্তিতে আওয়ামী লীগ নেতা বাবু শরিফের থেকে আমি দোকানটি নিয়েছি।’

ফুটপাতে দোকানঘর তোলার বিষয় স্বীকার করে জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক বাবু শরীফ বলেন, ‘কলেজ রোডে আরও আগে থেকেই আমার দোকান ছিল। নতুন রাস্তাটি করার সময় দোকানঘর ভাঙা পড়ে। ফুটপাতের পাশে আমার জমি আছে। নতুন করে দোকান করার সময় দেড় ফিটের মত ফুটপাতে ঢুকে পড়েছে। এ বিষয়টা আমি মেয়র ও কাউন্সিলরকে জানিয়ে করেছি। কাঁচা দোকান ঘর, পৌরসভার প্রয়োজনে ভেঙে ফেলতে বললে ভেঙে ফেলব।’

এ বিষয়ে মাদারীপুর পৌরসভার মেয়র খালিদ হোসেন ইয়াদ বলেন, ‘পৌরসভার সড়কের ফুটপাত দখল করে নতুন কয়েকটি দোকান তোলার বিষয়ে শুনেছি। তবে পৌরসভার বাসিন্দারা চাইলে সে যেই হোক ফুটপাত দখল করে দোকানঘর রাখতে পারবে না। বিষয়টি আমরা সরেজমিনে গিয়ে দেখব।’

এ সম্পর্কে মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক রহিমা খাতুন বলেন, ‘ফুটপাত দখল করে সাধারণ মানুষের চলাচলে কোন বাধা সৃষ্টি করার সুযোগ নেই। কলেজ রোডে যে ফুটপাত দখল করে দোকানঘর নির্মাণ করেছে সেটি ম্যাজিস্ট্রেট দিয়ে অভিযান চালিয়ে ভেঙে ফেলার ব্যবস্থা করা হবে।’


খবরটি আপনার স্যোশাল টাইমলাইনে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও অন্যান্য খবর
কপিরাইট © ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত মুহূর্ত কমিউনিকেশনস লিমিটেড।
error: কপি/রাইট ক্লিক এর অনুমতি নাই !!!