1. admin@muhurto.tv : muhurtotv :
  2. info@netpeon.org : Ali Siddiki : Ali Siddiki
  3. smbabu.mcj@outlook.com : S M Babu : S M Babu
শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০২:৩৬ পূর্বাহ্ন

জাজিরায় স্থায়ী বেড়িবাঁধের দাবিতে মানববন্ধন

এস এম শাকিল, সংবাদ মুহূর্ত, শরীয়তপুর।
  • তথ্য হালনাগাদের সময়ঃ শুক্রবার, ১৭ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৬৬ প্রদর্শিত সময়ঃ

‘ভাত চাই না বেড়িবাঁধ চাই, ত্রাণ চাই না টেকসই বাঁধ চাই, আশ্বাস নয় বাস্তবায়ন চাই, ভিটে মাটি নিয়ে বাঁচতে চাই’ এমন সব স্লোগান সম্বলিত ব্যানার নিয়ে প্রতিবাদ করতে দেখা গেছে পদ্মা নদীর পাড়ের রঞ্জন ছৈয়াল কান্দি এলাকায়।

শুক্রবার (১৭ ডিসেম্বর) বেলা ১২টার দিকে শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার বড়কান্দি ইউনিয়নের রঞ্জন ছৈয়াল কান্দির পদ্মা নদীর পাড়ে স্থায়ী ও টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে জাজিরা উপজেলার ভাঙন কবলিত এলাকাবাসী। মানববন্ধনে সহস্রাধিক মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

রঞ্জন ছৈয়ালেরকান্দি গ্রামের বাসিন্দা চাঁন মিয়া সিকদার বলেন, গেল তিন বছরে কয়েকদফায় বসতবাড়ীসহ আমার প্রায় ১০০ বিঘা জমি নদী গর্ভ চলে গেছে। আমি এখন সব হারিয়ে পথে বসেছি। তাই বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীমের কাছে দাবি আগামী বর্ষার আগে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণ করা হোক।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, আমাদের খাবারের দায়িত্ব সরকারকে নিতে হবে না, বাপ-দাদার সম্পত্তি রক্ষা করতে পারি সেজন্য টেকসই বেড়িবাঁধের ব্যবস্থা করতে হবে। সরকারের নেওয়া প্রকল্পগুলোর কাজ দ্রুত শুরু করতে হবে।

তারা আরও বলেন, প্রতিনিয়ত জাজিরা উপজেলার পদ্মার পাড়ের বসতবাড়ি ও ফসলি জমি ভাঙছে। এতে মানুষ সহায়-সম্বলহীন হয়ে পড়ছে। বর্ষার সময় নদী ভাঙন শুরু হয়। বর্ষার সময় বেড়িবাঁধ নির্মাণ সম্ভব নয়। তাই আগামী বর্ষার আগে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণ করা প্রয়োজন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত তিন বছরে জাজিরা পদ্মা সেতুর জিরো পয়েন্ট থেকে নড়িয়া বেড়িবাঁধ পর্যন্ত ১৬ কিলোমিটার এলাকায় সহস্রাধিক পরিবারের বসতবাড়ি, ফসলি জমি, মসজিদ, মাদরাসা, স্কুল, ইউনিয়ন পরিষদ, ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পদ্মা নদীর গর্ভে চলে গেছে। মাথা গোঁজার ঠাঁই না থাকায় অনেকেই অন্যের জায়গায় আশ্রয় নিয়েছেন। 

এ বিষয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী এস.এম আহসান হাবীব বলেন, পদ্মা সেতুর জিরো পয়েন্ট থেকে নড়িয়া বেড়িবাঁধ পর্যন্ত ১৬ কিলোমিটার এলাকায় স্থায়ী বেড়িবাঁধ প্রকল্পের জন্য প্রস্তাব মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছি। মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ পেলে বেড়িবাঁধের কাজ শুরু করা হবে। 

খবরটি আপনার স্যোশাল টাইমলাইনে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও অন্যান্য খবর
কপিরাইট © ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত মুহূর্ত কমিউনিকেশনস লিমিটেড।
error: কপি/রাইট ক্লিক এর অনুমতি নাই !!!