1. admin@muhurto.tv : muhurtotv :
  2. info@netpeon.org : Ali Siddiki : Ali Siddiki
  3. smbabu.mcj@outlook.com : S M Babu : S M Babu
বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ১০:২৪ পূর্বাহ্ন

বাংলাবাজার-শিমুলিয়া ঘাটে ফেরি চলাচলের সময় কমায় বেড়েছে ভোগান্তি

ইমাদাদুল হক মিলন, সংবাদ মুহূর্ত, মাদারীপুর।
  • তথ্য হালনাগাদের সময়ঃ সোমবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ১১৭ প্রদর্শিত সময়ঃ

মাদারীপুরের বাংলাবাজার ও মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচলের সময়সীমা দুই ঘন্টা কমিয়ে আনা হয়েছে। বর্তমানে সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ফেরি চলাচল করছে। এর আগে ভোর সাড়ে ৬টা থেকে বিকেল সাড়ে ৪টা (১০ ঘন্টা) পর্যন্ত ফেরি চলাচল করতো।

অন্যদিকে, ভোরে কয়েকদিন ধরে ভোরে কুয়াশাচ্ছন্ন থাকায় পদ্মাসেতুর পিলারের নিরাপত্তাজণিত কারণে ভোর সাড়ে ৬টার পরিবর্তে সকাল ৮টা থেকে ফেরি চলাচল করছে। এছাড়া বিকেল চারটায় উভয় ঘাট থেকে সর্বশেষ ফেরি ছেড়ে যাচ্ছে। বিআইডব্লিউটিসি’র বাংলাবাজার ঘাট সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। বর্তমানে নৌরুটে কদম, কুঞ্জলতা, বেগম সুফিয়া কামাল ও বেগম রোকেয়া নামের চারটি ফেরি চলাচল করছে।

বাংলাবাজার ঘাট সূত্রে জানা গেছে, নৌরুটে ফেরি স্বল্পতার কারণে ভোগান্তি লেগেই রয়েছে। আগে ১০ ঘন্টা ফেরি চলাচল করেও ঘাটে আসা সকল যানবাহন পার করতে পারেনি। এখন ৮ ঘন্টায় আরও কম সংখ্যক যানবাহন পার করা ছাড়া কোনও উপায় নেই। প্রতিদিন শতশত গাড়ি পদ্মা পার হতে ব্যর্থ হবে। ফলে ভোগান্তির মাত্রা আরও কিছুটা বেড়ে যাবে।

এদিকে, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে রোববার (৬ ডিসেম্বর) ভোর থেকে টানা বৃষ্টি হচ্ছে শিবচরে। ফলে নৌরুটে যাত্রীদের ভোগান্তি বেড়েছে। নৌযান চলাচল করলেও লঞ্চঘাট যাত্রী শূন্য বলে জানা গেছে। এছাড়া ফেরিঘাটে পারের অপেক্ষায় শতাধিক যানবাহন আটকে আছে বলে ফেরিঘাট সূত্র জানিয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসি’র বাংলাবাজার ঘাটের কর্মকর্তারা বলেন, ‘কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা মতই আমরা ফেরি চালিয়ে থাকি। চারটি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার বেশ কষ্টকর। তবে অ্যাম্বুলেন্স, লাশবাহী গাড়ি ও অসুস্থ্য থাকলে অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে পার করে থাকি। যাতে করে তারা ভোগান্তিতে না পড়ে। এছাড়া অসংখ্য গাড়ি দিন শেষে পার করা সম্ভব হয় না।’

বরিশাল থেকে আগত জাহাঙ্গীর নামে এক ট্রাকচালক জানান, এমনি ফেরি স্বল্পতা আবার সময় কম। আমরা যারা এই নৌরুট ব্যবহার করে ঢাকা যাই আমাদের ভোগান্তি আরও বেড়ে গেল। সরকারের উচিত ছিল ফেরির সংখ্যা ও সময় বাড়ানো।

খুলনা থেকে আগত চালক রোকন জানান, নৌরুটে ভোগান্তি পিছু ছাড়ছে না। এমনি এই ঘাটে আসলে সিরিয়ালে থাকতে হয়। অনেক সময় দেখা যায় সিরিয়ালে থাকতে থাকতে সময় শেষ। তাই রাতেও অনেক মালামাল নিয়ে ঘাটে ঘুমাইতে হয়। এখন সময় ২ ঘন্টা সময় কমানো হয়েছে। এখন বিপদে আমরা পড়লাম। এখন আমাদের অনেকের ফেরি না পেয়ে দৌলতদিয়া ঘাট ব্যবহার করতে হবে।

বিআইডব্লিউটিসি’র বাংলাবাজার ঘাটের ব্যবস্থাপক মো.সালাহউদ্দিন আহমেদ বলেন, সারাদিনে এখন ৮ ঘন্টা ফেরি চলছে। অনেক যানবাহন শেষ পর্যন্ত আমরা পার করতে পারি না। তবে জরুরি যানবাহন অগ্রাধিকার দিয়ে পার করা হচ্ছে।

খবরটি আপনার স্যোশাল টাইমলাইনে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই জাতীয় আরও অন্যান্য খবর
কপিরাইট © ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত মুহূর্ত কমিউনিকেশনস লিমিটেড।
error: কপি/রাইট ক্লিক এর অনুমতি নাই !!!