1. admin@muhurto.tv : muhurtotv :
  2. smbabu.mcj@outlook.com : S M Babu : S M Babu
মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৩৭ অপরাহ্ন
সর্বশেষ মুহূর্তঃ
রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের এি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত মহানগরীর পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করলেন রাসিক মেয়র ও আরএমপি কমিশনার খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় রাজশাহীতে দোয়া মাহফিল রাসিক মেয়র ও আরএমপি কমিশনারের প্রতিমা বিসর্জন পরিদর্শন রাজশাহীতে দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের মাঝে সাদাছড়ি বিতরণ দুর্গাপূজায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় রাজশাহীতে বিজিবি মোতায়েন আরএমপির সিআরটি সদস্যদের সাতদিনের মেন্টরশিপ কোর্স শুরু ইউএনও’র হস্তক্ষেপে শেষযাত্রায় অজ্ঞাত মরদেহের পরিচয় মিলেছে মাদ্রিদে বাংলাদেশি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ভ্রাতৃ সমাবেশ প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনের অনুদানের চেক বিতরণ করলেন বসিক মেয়র

শরীয়তপুরে ভারসাম্যহীন নারীর চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন ইউপি সদস্য

এস, এম, শাকিল, সংবাদ মুহূর্ত, শরীয়তপুর।
  • তথ্য হালনাগাদের সময়ঃ সোমবার, ৪ অক্টোবর, ২০২১
  • ২০ প্রদর্শিত সময়ঃ

শরীয়তপুরের নড়িয়ার একটি সেতুতে পড়েছিলেন অসুস্থ ও মানসিক ভারসাম্যহীন এক নারী। কেউ তাকে উদ্ধার বা সাহায্য করতে এগিয়ে আসছিলেন না। এ খবর পেয়ে ওই নারীকে উদ্ধার করে চিকিৎসার উদ্যোগ নিয়েছেন উপজেলার ভূমখাড়া ইউনিয়ন পরিষদের (১নম্বর ওয়ার্ড) ইউপি সদস্য মো. জসিম ঢালী। শনিবার (৩ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার চকধ বাজার সড়কের সেতু থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়। রোববার (৪ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়।

ইউপি সদস্য মো. জসিম ঢালী বলেন, একজন মানুষ হিসেবে আরেকজন বিপন্ন মানুষকে সাহায্য করাই ধর্ম। সেতুতে পড়ে থাকার পরও কেউ তাকে সাহায্য করেননি। ঘটনা জানতে পেরে প্রথমে নড়িয়া থানার ওসিকে ফোনে বিষয়টি জানাই। পরে আমি ওই নারীকে উদ্ধার করে চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছি। আমরা ওই নারীর পরিচয়ও জানার চেষ্টা করছি।

স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দা জানান, নড়িয়া উপজেলার চাকধ বাজার সেতুতে নিবার রাতে এক নারী পড়ে ছিলেন। কেউ তাকে উদ্ধার করছিলেন না। স্থানীয় কয়েকজন বিষয়টি মুঠোফোনে ইউপি সদস্য মো. জসিম ঢালীকে জানান। খবর পেয়ে জসীম ঢালী গিয়ে ওই নারীকে উদ্ধার করে নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যান। সেখানে তার চিকিৎসা শুরু হয়।

সিহাব খান নামের স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, সেতুর ওপর এক নারীকে পড়ে থাকতে দেখে আমি এগিয়ে যাই। তখন তিনি অচেতন ছিলেন। বিষয়টি সঙ্গে সঙ্গে ইউপি সদস্যকে জানাই। কিছুক্ষণ পর তিনি আমাকে ফোন করে সেখানে অপেক্ষা করতে বলেন। এরপর ইউপি সদস্য ওই নারীকে অটোরিকশায় তুলে হাসপাতালে নিয়ে যান। তিনি এমন কাজ করে মানবতার পরিচয় দিয়েছেন।

অসুস্থ ওই ভারসাম্যহীন ওই নারী তার ঠিকানা বলতে পারছেন না। তাকে নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নারী ওয়ার্ডে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তাকে চিকিৎসার দায়িত্বে আছেন জুনিয়র কনসালটেন্ট আব্দুর রহিম। 

নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শফিকুল ইসলাম বলেন, ওই নারীর পুরোপুরি জ্ঞান ফিরেনি। তার শরীর অনেক দুর্বল। প্রাথমিক চিকিৎসার পর তার বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। তার অবস্থা আগের চেয়ে একটু ভালো।

খবরটি আপনার স্যোশাল টাইমলাইনে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও অন্যান্য খবর
কপিরাইট © ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত মুহূর্ত কমিউনিকেশনস লিমিটেড।
error: কপি/রাইট ক্লিক এর অনুমতি নাই !!!