1. admin@muhurto.tv : muhurtotv :
  2. smbabu.mcj@outlook.com : S M Babu : S M Babu
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৩৮ অপরাহ্ন
সর্বশেষ মুহূর্তঃ
খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় রাজশাহীতে দোয়া মাহফিল রাসিক মেয়র ও আরএমপি কমিশনারের প্রতিমা বিসর্জন পরিদর্শন রাজশাহীতে দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের মাঝে সাদাছড়ি বিতরণ দুর্গাপূজায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় রাজশাহীতে বিজিবি মোতায়েন আরএমপির সিআরটি সদস্যদের সাতদিনের মেন্টরশিপ কোর্স শুরু ইউএনও’র হস্তক্ষেপে শেষযাত্রায় অজ্ঞাত মরদেহের পরিচয় মিলেছে মাদ্রিদে বাংলাদেশি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ভ্রাতৃ সমাবেশ প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনের অনুদানের চেক বিতরণ করলেন বসিক মেয়র আসছে জুনের আগে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন: পানিসম্পদ উপমন্ত্রী দুর্গাপূজা উপলক্ষে আরএমপি কমিশনারের মতবিনিময় সভা

রাজশাহী মহানগরীতে ডিজিটাল নিরাপত্তা দিচ্ছে সাইবার ক্রাইম ইউনিট

সৈয়দ মাসুদ, সংবাদ মুহূর্ত, রাজশাহী।
  • তথ্য হালনাগাদের সময়ঃ শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ২৯৫ প্রদর্শিত সময়ঃ

২০২০ সালের ১০ সেপ্টেম্বর রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার হিসেবে যোগদান করেন চৌকস পুলিশ কর্মকর্তা মোঃ আবু কালাম সিদ্দিক। আরএমপিতে যোগদানের পরপরই সাংবাদিকদের সাথে মত বিনিময়ের জন্য মিট দ্যা প্রেসের আয়োজন করেন তিনি। সেখানে বক্তব্য দিতে গিয়ে তিনি জনগণের প্রত্যাশা পূরণ এবং পুলিশি সেবা নগরবাসীর দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনার কথা জানান। সে সময় সাংবাদিকরা ডিজিটাল নিরাপত্তায় সাইবার ক্রাইম ইউনিট গঠনের প্রস্তাবনা দিলে, তিনি প্রযুক্তিনির্ভর ও ইন্টেলিজেন্স ভিত্তিক পুলিশিং সেবা প্রদানের আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এরপরই নতুন গল্পের শুরু হয়। এরপর গত বছরের ১৭ সেপ্টেম্বর একজন সহকারী পুলিশ কমিশনারের নেতৃত্বে একজন এসআই, একজন এএসআই এবং তিনজন কনস্টেবলসহ মোট ছয়জন দক্ষ ও প্রশিক্ষিত সদস্য নিয়ে আরএমপিতে একটি সম্পূর্ণ পৃথক সাইবার ক্রাইম ইউনিট গঠন করেন। পরবর্তীতে আরও কিছু প্রশিক্ষিত সদস্য যুক্ত হয়ে বর্তমানে ১৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি দক্ষ, প্রশিক্ষিত ও চৌকস টিম এই ইউনিটে কাজ করছে।

সরাসরি অপারেশনাল টিম হিসেবে ফিল্ডে কাজ না করার কারণে অনেকেই এই ইউনিটের কার্যক্রম সম্পর্কে অবগত নন। মূলত এই ইউনিট রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের সকল কার্যক্রমে বিশেষ করে সাইবার অপরাধ ও অপরাধী শনাক্তকরণসহ গ্রেপ্তারে সহায়তা প্রদানের উদ্দেশ্যে প্রতিষ্ঠা করা হয়। মেট্রোপলিটন এলাকার সকল ক্লু-বিহিন ঘটনা উদঘাটন, অপরাধী শনাক্তকরণ ও গ্রেপ্তারে সহায়তার কাজ নিয়মিতভাবে করে যাচ্ছে এই ইউনিট।

এই ইউনিটের সরাসরি উপস্থিত হয়েও ভুক্তভোগীরা অভিযোগ জানাতে পারেন। নগরীরর শাহমখদুম থানা ভবনের চতুর্থ তলায় এর কার্যালয়। এছাড়াও হটলাইন ০১৩২০০৬১৯৯৯ নম্বরে কল দিয়েও সহযোগিতা পাওয়া সম্ভব।

গত এক বছরে রাজশাহী মেট্রোপলিটনসহ পার্শ্ববর্তী এলাকার মধ্যে প্রায় ৩৬০টির মত ফেসবুক সংক্রান্ত অপরাধের অভিযোগ এসেছে এই ইউনিটে। উল্লেখযোগ্য ফেসবুক সংক্রান্ত অভিযোগের মধ্যে রয়েছে নারীদের বিভিন্ন স্পর্শকাতর ছবি/ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে ব্ল্যাকমেইল করা, ফেসবুকে যে কারো ছবি দিয়ে ভুয়া একাউন্ট তৈরি করা, সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও প্রকাশ করে মানহানি করা, ফেসবুক একাউন্ট হ্যাক করা, বিভিন্ন ভুয়া মেসেঞ্জারের মাধ্যমে পর্ণ ছবি ও ভিডিও পাঠানোসহ ফেসবুকের মাধ্যমে সংঘটিত প্রায় ৩৬০ টি অপরাধের মধ্যে ৩৪০ টির মতো নিষ্পত্তি করেছে আরএমপি’র সাইবার ক্রাইম ইউনিট।

এরপর আছে বিকাশ, নগদ, রকেটসহ বিভিন্ন অনলাইন মানি ট্রান্সজেকশন/ট্রান্সফার সিস্টেমের অপরাধ। বিভিন্ন ভুয়া অফারের মাধ্যমে পিনকোড নিয়ে বিকাশ একাউন্ট হ্যাক, ভুয়া রেজিস্ট্রেশন, সংঘবদ্ধ অপরাধীদের বিকাশ, নগদ ও রকেট চক্রের পরিকল্পনামাফিক ফাঁদসহ অন্যান্য অপরাধ। গতেএক বছরে এই সংক্রান্ত প্রায় ৫০ টি অভিযোগ এসেছে এবং সবকয়টির নিষ্পত্তি করেছে এই ইউনিট।

পর্ণগ্রাফি সংক্রান্ত অপরাধের প্রায় ৫০টির মতো অভিযোগ এসেছে এই ইউনিটে। এই সংক্রান্ত অপরাধের সব কয়টির অপরাধী শনাক্ত ও গ্রেপ্তারে ভূমিকা রেখেছে এই ইউনিট। ই-মেইল সংক্রান্ত তিনটি অভিযোগ এসেছে। এর মধ্যে দু’টি অভিযোগের নিষ্পত্তি হয়েছে এবং একটি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এ সংক্রান্ত উল্লেখযোগ্য অপরাধ হলো ই-মেইল হ্যাক করে বিভিন্ন অপ্রতিকর তথ্য পাঠানো ও ভুয়া বা বেনামে মেইল আইডি খুলে বিভিন্ন অপরাধ করা।

টিকটক/লাইকি সংক্রান্ত মোট পাঁচটি অভিযোগ এসেছে এবং সবগুলোই নিষ্পত্তি করা হয়েছে। প্রায় ৩০ টির মত অপহরণের অভিযোগ এসেছে এই ইউনিটে এবং প্রত্যেকটি ঘটনার ভিক্টিম উদ্ধারসহ আসামি শনাক্তকরণ ও গ্রেপ্তারে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করেছে। হারানো বা চুরি বা ছিনতাই হওয়া মোবাইল উদ্ধারের মতো অনেক সফলতা রয়েছে এই ইউনিটের। গত এক বছরে প্রায় ৮২০টি অভিযোগ এসেছে এবং প্রায় ৭৫০ টি মোবাইল উদ্ধার করার তথ্য সরবরাহ করা হয়েছে।

এছাড়াও মেট্রোপলিটন এলাকার অন্যান্য ক্লু-বিহীন ঘটনা ও সংঘবদ্ধ অপরাধ ও অপরাধী শনাক্তপূর্বক গ্রেপ্তারে প্রতিনিয়ত ভুমিকা পালন করে চলছে এই ইউনিট। বিভিন্ন ধরনের অপরাধসহ সর্বমোট প্রায় ১৩২১ টির মতো অভিযোগ এসেছে এবং ১২৩০ টির মতো অপরাধের নিষ্পত্তি করেছে আরএমপি’র নব্য গঠিত সাইবার ক্রাইম ইউনিট যেখানে সফলতার হার প্রায় ৯৩ শতাংশেরও উপরে।

এছাড়াও আরএমপির সাইবার ক্রাইম ইউনিট বাংলাদেশের সকল ইউনিটের মধ্যে সর্বপ্রথম কিশোরদের ডিজিটাল ডাটাবেজ তৈরি করেছে। যেখানে রাজশাহী মহানগর এলাকার প্রায় ৫০০ জনের মত কিশোরের তথ্য সংরক্ষিত রয়েছে। এছাড়া রাজশাহী মহানগর এলাকার প্রায় নয়টি কিশোর গ্যাং এর বিস্তারিত তথ্য সংরক্ষণ করা হয়েছে। প্রতিদিন আরএমপির প্রত্যেকটি থানার মাধ্যমে ডাটাবেজ এ সংরক্ষিত কিশোরদের তদারকির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশিং সেবার অন্যতম বহুল তথ্য সম্বলিত হ্যালো আরএমপি অ্যাপ সাইবার ক্রাইম ইউনিটের অধীনে পরিচালিত হয়। সেখানে নিজের পরিচয় গোপন করে বিভিন্ন অভিযোগ ও তথ্য প্রদান করতে পারেন নাগরিকরা। এছাড়াও এই অ্যাপ এর মাধ্যমে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের সকল তথ্য সহজেই পাওয়া যায়। এ পর্যন্ত প্রায় ২২৪টি অভিযোগ এই মাধ্যমে পাওয়া গেছে যার সবগুলো অভিযোগের নিষ্পত্তি করা হয়েছে।

রাজশাহী মহানগর এলাকার সার্বিক আইন শৃংখলা মনিটরিং, বিভিন্ন অপরাধ ও অপরাধী শনাক্তকরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের অপারেশন কন্ট্রোল এন্ড মনিটরিং সেন্টার (সেন্ট্রাল সিসি ক্যামেরা ইউনিট) ও পরিচালিত হয় আরএমপির সাইবার ক্রাইম ইউনিট মাধ্যমে। রাজশাহী মহানগরীর প্রায় ৫০০টি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করে পুরো মহানগরীকে নজরদারিতে নিয়ে আসার কাজও করে যাছে এই ইউনিট। এখন পর্যন্ত প্রায় ২২৭ টি ঘটনায় অপরাধী শনাক্তকরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে এই ইউনিট।

খবরটি আপনার স্যোশাল টাইমলাইনে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরও অন্যান্য খবর
কপিরাইট © ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত মুহূর্ত কমিউনিকেশনস লিমিটেড।
error: কপি/রাইট ক্লিক এর অনুমতি নাই !!!