1. admin@muhurto.tv : muhurtotv :
  2. info@netpeon.org : Ali Siddiki : Ali Siddiki
  3. smbabu.mcj@outlook.com : S M Babu : S M Babu
বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ১০:৪০ পূর্বাহ্ন

বাউফলে পল্লী বিদ্যুৎ ডিজিএম এর বিরুদ্ধে অসদাচরণের অভিযোগ

এম. নাজিম উদ্দিন, সংবাদ মুহূর্ত, পটুয়াখালী।
  • তথ্য হালনাগাদের সময়ঃ শনিবার, ৩১ জুলাই, ২০২১
  • ৩০৩ প্রদর্শিত সময়ঃ

পটুয়াখালীর বাউফলে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজারের বিরুদ্ধে অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারি, গ্রাহকদের এবং গণমাধ্যমকর্মীদের সাথে অসদাচরণের অভিযোগ উঠেছে। তার এমন আচরণে কর্মকর্তা-কর্মচারিদের মাঝে অসন্তোষ বিরাজ করলেও চাকরির ভয়ে কেউ মুখ খুলছেন না। এছাড়াও গ্রাহক এবং বাউফলে কর্মরত সাংবাদিকদের সাথেও খারাপ আচরণ করার অভিযোগ আছে তার বিরুদ্ধে।

সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে, বাউফলে তার অধীনস্থ ১১৮ জন কর্মকর্তা-কর্মচারি রয়েছেন। যোগদানের পর থেকেই নানা অজুহাতে ডিজিএম কর্মকর্তা কর্মচারিদের সাথে অশোভন আচরণ করে আসছেন। এ কারণে কর্মকর্তা-কর্মচারিদের মধ্যে চরম অসন্তোষ বিরাজ করছে। আর এই অসন্তোষের জেরে দাপ্তরিক কাজকর্ম এবং মাঠের কাজে অনেকেই মনোবল হারিয়ে ফেলছেন বলে জানিয়েছেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বাউফল পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির একাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারি জানান, ডিজিএম আমাদের সাথে অশোভন আচরণ করছেন। অনেকের সাথেই তুই-তোকারি বলে গালমন্দ করছেন। সহকর্মী হিসেবে তার কাছ থেকে নূন্যতম সম্মানটুকু  পাওয়া যাচ্ছেনা। তার আচরণের কারণে সহকর্মীদের কর্ম তৎপরতা এবং মনোবল কমে যাচ্ছে। তবে চাকরি চলে যাওয়ার ভয়ে কেউই মুখ খুলতে চাচ্ছেন না।

অন্যদিকে, অনেক গ্রাহকের অভিযোগ, ডিজিএম’র টেবিলে কোনো সমস্যা নিয়ে গেলে সে নিজেই কথা বলতে থাকেন। সমস্যার কথা না শুনে কাগজপত্র ছুঁড়ে ফেলে দেন। সমস্যা সমাধানের জন্য টেবিলে টেবিলে কাগজ নিয়ে ঘুরতে হচ্ছে।

বাউফলের বিদ্যুতের সমস্যা নিয়ে শতশত গ্রাহক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা ধরনের বিরূপ মন্তব্য করলেও এ বিষয়ে ডিজিএম কোনও পদক্ষেপই নিচ্ছেন না। ডিজিএম তার পূর্বের কর্মস্থলেও (মুন্সিগঞ্জ) কর্মকর্তা-কর্মচারিদের সাথেও এমন অসদাচরণ করে এসেছেন বলে জানা গেছে।

বাউফলে কর্মরত সাংবাদিকদের সাথেও ভাল আচরণ করছেন না ওই কর্মকর্তা। বাউফল প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও ভোরের কাগজের জেলা প্রতিনিধি অতুল চন্দ্র পাল গেল শুক্রবার রাতে বারবার বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণ জানতে চাইলে কী কারণে বিদ্যুৎ থাকছে না তার উত্তর না দিয়ে ‘যতদিন বিদ্যুতের তার আছে ততদিন সমস্যা হবে’ বলে উত্তর দেন তিনি।

স্থানীয় সংবাদকর্মী মো. মাইনুদ্দিন জিপু তার ফেসবুক আইডিতে লিখেছেন, ডিজিএম বাউফলে যোগদান করার পর থেকেই বিদ্যুৎ আসে যায়। এই ডিজিএমকে পরিবর্তনের দাবিও জানান তিনি। এরকম অনেক সংবাদকর্মীই ওই ডিজিএমের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ করেন।  

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ডিজিএম সোহরাব হোসেন বলেন, সকল অভিযোগই ভিত্তিহীন এবং বানোয়াট। আমরা এগুলো কখনোই করিনা। মাঠ পর্যায়ে কাজ তদারকি করেন কিনা জানতে চাইলে ডিজিএম বলেন, মাঠ পর্যায়ের কাজ সাধারণত এজিএমরাই করেন। মাঝে মধ্যে মনিটরিং করতে যাই। আমার বয়স একটু বেশি হওয়ায় এবং করোনার কারণে এখন একটু কম বের হই। তবে আমরা আমাদের সাধ্য মতো গ্রাহক সেবা দিয়ে যাচ্ছি।

এ বিষয়ে পটুয়াখালী জেলা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার শাহ রাজ্জাকুর রহমান বলেন, ‘এমন অসদাচরণ করার কথা না। খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থ্যা নেওয়া হবে।

খবরটি আপনার স্যোশাল টাইমলাইনে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই জাতীয় আরও অন্যান্য খবর
কপিরাইট © ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত মুহূর্ত কমিউনিকেশনস লিমিটেড।
error: কপি/রাইট ক্লিক এর অনুমতি নাই !!!